লঞ্চ হলো Quad-Core Cortex-A72 SoC যুক্ত Raspberry Pi 400!

0
791
Raspberry Pi 400 keyboard
Raspberry Pi 400!

লঞ্চ হলো কীবোর্ডের মধ্যে ইন-বিল্ট Raspberry Pi 400। সাথে থাকছে USB, ইথারনেট, মাইক্রোএসডি এবং HDMI পোর্টের সুবিধা।

Raspberry Pi 400 হলো একটি ARM ওপর ভিত্তি করে বানানো কম্পিউটার বিল্ট-ইন কীবোর্ড। এটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০ ডলার, যা ভারতীয় মূল্যে ৫০০০ টাকার ওপরে। যদিও এটি আসল Raspberry Pi- এর মতো মোটেই নয়। এটি মূলত একটি DIY প্রোজেক্ট যা শিশুদের কোডিং শেখার কাজে ব্যবহার করার জন্য সবথেকে উপযুক্ত। এই কীবোর্ডটির ব্যবহারও ভীষনই সহজ। কীবোর্ডটিকে মনিটরের সাথে সংযুক্ত করে দিলেই প্রায় সাথে সাথেই এটি ব্যবহার করা যাবে। এই কীবোর্ডটি মূলত কম্পিউটারে সহজ কাজকর্মের উপযুক্ত। একটি বয়সের পর এই কীবোর্ড খুব জটিল কাজে ব্যবহারকারীরা ব্যবহার করতে অক্ষম হবেন। প্রোগ্রামিং শেখার একেবারে প্রথম ধাপগুলোতে শিশুরা এই কীবোর্ড ব্যবহার করতে সক্ষম হবে।

Raspberry Pi 400-এর কয়েকটি বিশেষত্ব হলো-

  • এই ছোট্ট কম্পিউটারে আছে Bluetooth 5.0-এর সুবিধা।
  • Raspberry Pi 400-এ আছে ৪ জিবি র‍্যামের সুবিধা।
  • Raspberry Pi 400-এর মূল্য হলো ৭০ ডলার। এর সাথে বিনামূল্যের কোনো অ্যাক্সেসরিস-এর সুবিধা পাওয়া যাবে না।

Raspberry Pi 400 এর ভেতরে আছে Broadcom -এর তরফ থেকে quad-core Cortex-A72 (ARM v8) SoC -এর সুবিধা। Raspberry Pi 400 ব্যবহারের ক্ষেত্রে খুবই সহজ। এটি ব্যবহার করার জন্য কোনো টিভি কিংবা অন্য কোনো মনিটরকে এটিতে উপস্থিত Micro-HDMI পোর্টের মাধ্যমে যুক্ত করতে হবে। ব্যস, শুধু এইটুকুই সফল ভাবে সংযুক্ত করার সাথে সাথেই এই কীবোর্ডের মাধ্যমে কাজ শুরু করা সম্ভব হবে। এই কীবোর্ডে আছে একাধিক কানেক্টিভিটির সুবিধা। Raspberry Pi 400 হলো একটি নাম্বার প্যাড ছাড়া সহজ ব্যবহারযোগ্য একটি কম্প্যাক্ট কীবোর্ড।

আজকের পোস্টে সদ্য লঞ্চ হওয়া Raspberry Pi 400 -এর সম্বন্ধে করা হলো বিস্তারিত আলোচনা।

যদিও ভারতের টেকনোলজির বাজারে এখনো Raspberry Pi 400 -এর পদার্পন ঘটে নি, তবে শীঘ্রই এই কীবোর্ড ভারতীয় বাজারেও সহজলভ্য হতে চলেছে। তাই এটি ভারতে প্রবেশ করার আগেই আমাদের পেজ থেকে জেনে নিন এটির সম্বন্ধে বিস্তারিত তথ্য।

১। Raspberry Pi 400 -এর স্পেসিফিকেশন

Raspberry Pi 400 টি মূলত যেহেতু শিশুদের একদম বেসিক লেবেলের কোডিং শেখার কথা মূলত মাথায় রেখে তৈরী করা হয়েছে। তাই এই কীবোর্ডের ব্যবহারের পদ্ধতিও খুবই সহজ। এই কীবোর্ড সহজেই এটির HDMI পোর্টের মাধ্যমে যেকোনো মনিটরের সাথে সংযুক্ত করে দেওয়া সম্ভব। বাড়িতে যদি অতিরিক্ত মনিটর কিংবা টিভি থেকে থাকে তাহলে অনায়াসেই এই কীবোর্ডকে সেটির সাথে যুক্ত করে তৎক্ষণাৎ কাজ শুরু করে দেওয়া যাবে। অর্থাৎ বহনযোগ্যতার দিক থেকে Raspberry Pi 400 খুবই সুবিধাজনক।

লিনাক্স-এর ওপর ভিত্তি করে চলে Raspberry Pi 400 এবং কিছু বেসিক কম্পিউটারের কাজের জন্য এটি একদম উপযুক্ত। এটির মাধ্যমে সহজেই ওয়েব সার্ফ করা, ডকুমেন্ট তৈরী করা কিংবা এডিট করা, ভিডিও দেখা ইত্যাদি করা যায়। তবে এতে যদি থাকে লিনাক্স ওএস-এর স্পেসিফিফেশন তবে এটি এডুকেশন এবং লার্নিং  প্রোগ্রামের জন্য বিশেষভাবে উপযুক্ত হবে। এটি তখন Raspberry Pi OS ডেস্কটপ পরিবেশ ব্যবহার করবে।

এলাকার ওপর ভিত্তি করে Raspberry Pi 400 -এ আছে ৭৮ অথবা ৭৯টি কী অথবা বোতাম। তবে Raspberry Pi 400 -এ কোনো নাম্বার প্যাডের অস্তিত্ব নেই। Raspberry Pi 400 -এ আছে 5V DC USB কানেকটরের সুবিধা। বর্তমানে টেকনোলজির বাজারে শুধুমাত্র UK, US, জার্মান, ফ্রেঞ্চ, ইটালিয়ান, এবং স্প্যানিস লে-আউট সহজলভ্য আছে ক্রেতাদের জন্য। এবং সূত্র খবর খুব শীঘ্রই নরওয়েজিয়ান, সুইডিশ, ড্যানিশ, পর্তুগিজ এবং জাপানি লে-আউটও সহজলভ্য হয়ে যাবে টেকনোলিজির বাজারে। তবে ভারতে Raspberry Pi 400 কবে পদার্পন করবে এই বিষয়ে এখনো কোনো তথ্য জানা যায় নি।

২। Raspberry Pi 400 -এর ফিচার

Raspberry Pi 400 ব্যবহারের দিক থেকে সহজ হলেও এর ফিচার খুবই আকর্ষণীয়। 1.8GHz এর Broadcom BCM2711 quad-core Cortex-A72 (ARM v8) 64-bit SoC দ্বারা নির্মিত Raspberry Pi 400 -এ আছে 3,200MHz-এর 4GB LPDDR4 RAM -এর সুবিধা। কানেক্টিভিটির জন্যও Raspberry Pi 400-এ ব্যবহারকারী পেয়ে যাবেন একাধিক সুবিধা। কানেক্টিভিটির জন্য এতে আছে dual-band IEEE 802.11b/g/n/ac Wi-Fi, Bluetooth 5.0, Gigabit ইথারনেট, দুটি USB 3.0 পোর্ট, একটি USB 2.0 পোর্ট, দুটি Micro-HDMI পোর্ট, একটি microSD কার্ড স্লট এবং একটি GPIO header। Raspberry Pi 400 -এর Micro-HDMI পোর্ট দুটি 6০fps -এ ৪ হাজার রিজোলিউশন অবদি সাপোর্ট করতে পারে। Raspberry Pi 400 4K 60fps -এ H.265 -এর ভিডিও ডিকোড করতে সক্ষম। এছাড়াও Raspberry Pi 400 -এ আছে OpenGL ES 3.0 গ্রাফিক্সের সুবিধা।

৩। Raspberry Pi 400 -এর মূল্য

সদ্য লঞ্চ হওয়া Raspberry Pi 400 -এর মূল্য হলো ৭০ ডলার। ভারতীয় মূল্যে এর দাম পড়বে ৫,২০০ টাকার আশেপাশে। তবে এই মূল্যে Raspberry Pi 400 -এর সাথে বিনামূল্যের কোনো অ্যাকসেসরিস পাওয়া যাবে না। অ্যাকসেসরিস যুক্ত Raspberry Pi 400 -এর মূল্য হলো ১০০ ডলার, যা ভারতীয় মূল্যে ৭,৫০০ টাকার কাছাকাছি। এই মূল্যে Raspberry Pi 400 -এর সাথে যেই অ্যাকসেসরিসগুলো পাওয়া যাবে সেইগুলো হলো একটি মাউস, USB-C পাওয়ার সাপ্লাই, microSD কার্ড, এবং Micro-HDMI থেকে HDMI cable এবং তার সাথে সাথে পাওয়া যাবে নতুন গ্রাহকদের জন্য একটি বিগিনারস গাইড। যার মাধ্যমে এই অ্যাকসেসরিস এবং কীবোর্ডের ব্যবহার দেখে নিতে পারবেন ক্রেতা।

তবে এখনো পর্যন্ত Raspberry Pi 400 কবে ভারতীয় মার্কেটে প্রবেশ করবে এই বিষয়ে কোম্পানি কতৃপক্ষের তরফ থেকে কিছুই জানানো হয় নি। তবে অনেক আশাবাদী নেটিজেনের মতে খুব শীঘ্রই Raspberry Pi 400 -এর ভারতে প্রবেশ ঘটবে।

আপনার কি মনে হয়?আপনার মতামত অবশ্যই আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে এবং লাইক ও শেয়ার করে পোস্টটিকে ছড়িয়ে দিন সকলের মাঝে।টেকনোলজি সম্বন্ধিত আরও খবর জানতে চোখ রাখুন টুকিটেকের ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়া পেজে। 

আরও পড়ুনঃ  টেক-ভিশনারী সুশান্ত সিং রাজপুতের টেক-সত্ত্বার এক অনন্য কাহিনী

Leave a Reply