ওয়ান প্লাস-এর সহ প্রতিষ্ঠাতা কার্ল পেই নিয়ে আসলো একটি নতুন টেক ব্র্যান্ড ‘নাথিং’

0
936

ওয়ানপ্লাস-এর পর কার্ল্ পেই-এর পরবর্তী টেক ব্র্যান্ড আসতে চলেছে টেকনোলজির জগতে নাম ‘নাথিং’। এই ধরনের এক অভিনব নামের সাথেই এই ব্র্যান্ড টেক-প্রেমীদের জন্য আনবে উন্নত সমস্ত টেক গ্যাজেট।

টেক বিশ্বে ইতিমধ্যেই বিশেষ জনপ্রিয়তার স্থান পেয়ে গেছে ‘ওয়ানপ্লাস’ নামক ব্র্যান্ডটি। এই ওয়ানপ্লাস ব্র্যান্ডের সহ প্রতিষ্ঠাতা হলেন কার্ল পেই। তিনি লঞ্চ করেছেন একটি লন্ডন ভিত্তিক নতুন কনস্যুমার টেক ব্র্যান্ড, যার নাম “নাথিং”। এমনকি তিনি এও জানিয়েছেন যে, এই ‘নাথিং’ এই বছরের প্রথমার্ধেই তাদের প্রথম স্মার্ট ডিভাইস প্রকাশ করতে চলেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মূল অর্থায়নের পর পরই এই ঘোষণা আসে সর্বসমক্ষে। এই অর্থায়নের পেছনে আছে বিশ্বের তাবড় তাবড় টেক লিডার, যার মধ্যে আছেন টনি ফাদেল, কেসি নিস্তাত, কেভিন লিন, স্টিভ হাফম্যান এবং জশ বাকলিদের মতো বিশাল বিশাল ব্যক্তিত্ব।

জানা গেছে, সিআরইডি-র প্রতিষ্ঠাতা কুণাল শাহও নতুন টেক ব্র্যান্ড “নাথিং”-এর পেছনে বিনিয়োগ করেছেন বেশ কিছু পরিমান অর্থ। যদিও এই অর্থের পরিমাণ এখনো সঠিক ভাবে জানা যায় নি।

ওয়ানপ্লাসের সহ প্রতিষ্ঠাতা এবং বর্তমানে ‘নাথিং’-এর প্রতিষ্ঠাতা পেই সংবাদমাধ্যমকে এই বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে জানান যে, টেকনোলজির জগতে আকর্ষণীয় এবং অন্যরকমের কোনো বড়ো সড়ো আবিষ্কার বহুদিন হয়ে গেল আর হয় না। তাই তার মতে এখন সময় এসেছে টেকনোলজির জগতে এক বিশাল পরিবর্তন আনার। মূলত এই কথা মাথায় রেখেই পেই ‘নাথিং’কে লঞ্চ করলেন টেকনোলজির জগতে,

“নাথিং -এর লক্ষ্য হলো মানুষ এবং টেকনোলজির মধ্যেকার বিভাজনকে বিনষ্ট করে মানুষের জন্য একটি উন্নতমানের ডিজিটাল ভবিষ্যত গড়ে তোলা। আমরা বিশ্বাস করি যে, টেকনোলজি তখনই উন্নত হয়ে ওঠে যখন সুন্দর, প্রাকৃতিক এবং তার সাথে সাথে ব্যবহারের ক্ষেত্রে সহজাত হয়ে ওঠে। এই টেকনোলজি এতটাই উন্নত ও ভবিষ্যতের উপযোগী হয়ে উঠবে যে এটি ভীষনভাবে মানুষের জীবনধারার সাথে মিশে যাবে এবং যেন মনে হবে কোনো টেকনোলজির আলাদা অস্তিত্ব নেই”। একটি বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছেন পেই।

এই কোম্পানির লক্ষ্য মানুষকে প্রযুক্তির ইতিবাচক সম্ভাবনায় বিশ্বাস করতে অনুপ্রাণিত করা, এবং ২০২১ সাল থেকে শুরু হতে চলেছে এই লক্ষ্যের উদ্দেশ্যে অভিযান ‘নাথিং’-এর সাথে।

“ভোক্তা প্রযুক্তি বা কনস্যুমার টেক হলো অসীম সম্ভাবনার জোয়ার। নাথিং হতে চলেছে টেক জগতের একটি সামনের সারির ব্র্যান্ড এবং আমি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে আছি সারা পৃথিবীকে এই ব্র্যান্ডের প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে দেখার জন্য” বলেছেন কেসি নিস্তাত, ইউটিউবার এবং “নাথিং”- এর একজন বিনিয়োগকারী।

এক সুইডিশ প্রযুক্তি উদ্যোক্তা মাত্র ২৪ বছর বয়সে ২০১৩ সালে OnePlus সহ-প্রতিষ্ঠা করেন। তিনিই হলেন বর্তমানে ‘নাথিং’ -এর প্রতিষ্ঠাতা কার্ল পেই।

তবে ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে পেই নিয়েছিলেন তার জীবনের একটি কঠিন সিদ্ধান্ত। তিনি প্রায় সাত বছর ওয়ানপ্লাসে কাজ করার পর ছেড়ে দেন ওই কোম্পানি। এবং মূলত তার পরেই শুরু হয় ‘নাথিং’ -এর জন্য স্বপ্ন জোড়ার কাজ।

শাহ তার সম্পূর্ণ কর্মজীবনে একাধিক খাতে বিনিয়োগ করেছেন এবং এই বিনিয়োগ তার ব্যক্তিগত ক্ষমতার মধ্যেই পড়ে। তিনি ২০১৮ সালে ‘মেম্বারস-অনলি’ ক্রেডিট কার্ড ব্যবস্থাপনা এবং বিল পেমেন্টস প্ল্যাটফর্ম সিআরইডি প্রতিষ্ঠা করেন।

পেই শাহ-এর কথা বলতে গিয়ে বলেছেন “শাহ আমার চেনা সবচেয়ে তীক্ষ্ণ ব্যক্তিদের একজন। আমি গর্বিত এবং আনন্দিত যে তাকে একজন বন্ধু, উপদেষ্টা এবং এখন একজন বিনিয়োগকারী হিসেবে পেয়েছি”।

আশা করা যাচ্ছে কার্ল পেই -এর এই নতুন উদ্যোগ ‘নাথিং’ ভবিষ্যতে টেক-প্রেমীদের জন্য নিয়ে আসতে চলেছে বিভিন্ন ধরনের উন্নতমানের টেক-উপহার।

আপনার কি মনে হয়?আপনার মতামত অবশ্যই আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে এবং লাইক ও শেয়ার করে পোস্টটিকে ছড়িয়ে দিন সকলের মাঝে।টেকনোলজি সম্বন্ধিত আরও খবর জানতে চোখ রাখুন টুকিটেকের ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়া পেজে। 

আরও পড়ুনঃ সিগন্যাল অ্যাপ কি হোয়াটসঅ্যাপের যোগ্য বিকল্প? জেনে নিন বিস্তারিত

Leave a Reply