কোন ক্যামেরা লেন্স হবে আপনার ফোটোগ্রাফির জন্য উপযুক্ত?- জেনে নিন বিস্তারিত!

0
1785

যাদের ফোটোগ্রাফির নেশা আছে কিংবা যাদের কাছে ‘ডিএসএলআর’ ক্যামেরা কিংবা ‘মিরর লেস’ ক্যামেরা আছে তারা ভালোভাবেই জানেন যেকোনো উন্নতমানের মোবাইল ফোন কিংবা সাধারণ ক্যামেরার তুলনায় এই ক্যামেরাগুলোতে কতটা উন্নতমানের ছবি তোলা যায়।তবে এই ব্যাপারটাও ঠিক যে প্রফেশনাল ক্যামেরা ব্যবহার করলে সবরকমের ছবি একটি মাত্র লেন্স দ্বারা তোলা সম্ভব নয়।ফোটোগ্রাফিতে নিজের দক্ষতা বাড়াতে হলে কিংবা নিজের ছবির মান উন্নত করতে হলে অবশ্যই নিজের ক্যামেরার কিটের সাথে যেই সমস্ত লেন্স এসেছে তার বাইরে গিয়ে লেন্স কিনে তার মাধ্যমে ছবি তুলতে হবে।

তবে কোন ধরনের ছবির জন্য কোন ধরনের লেন্স উপযুক্ত হবে সেই বিষয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন থাকে।সেই প্রশ্নের সমাধান করার জন্যই আজকের পোস্টে ক্যামেরার লেন্সের প্রকারভেদ নিয়ে আলোচনা করা হলো।

টেলিফোটো লেন্স 

ক্যামেরার টেলিফোটো লেন্স ব্যবহৃত হয় অনেক দূরের ছোটো জিনিসের ছবি তোলার জন্য।যদি আপনি কোনো স্পোর্টিং ইভেন্টের ফোটো তুলতে চান তবে দর্শকের আসন থেকেই টেলিফোটো লেন্সের মাধ্যমে অনায়াসেই সেটি করা সম্ভব হবে।এছাড়াও আপনি যদি ‘ওয়াইল্ড ফোটোগ্রাফি’ করতে ইচ্ছুক হন তাহলেও টেলিফোটো লেন্স আপনার জন্য একদম উপযুক্ত।একটি ছোটো টেলিফোটো লেন্স দম্পতির বিশেষ মূহুর্তকে বিরক্ত না করে বিয়ের ছবি তুলতেও সাহায্য করে।

ওয়াইড অ্যাঞ্জেল লেন্স

ল্যান্ডস্কেপ ফোটোগ্রাফারদের জন্য এই লেন্স একেবারে উপযুক্ত।বড়ো দৃশ্যের ছবি একটি ফ্রেমে বন্দি করার জন্য এই লেন্স ক্যামেরা ভীষনভাবে উপযুক্ত।এছাড়াও যদি অনেক বড়ো গ্রুপের ছবি তোলার থাকে তাহলেও এই লেন্সের প্রয়োজন পড়ে।তবে ওয়াইড অ্যাঞ্জেল লেন্সকে কিছু কিছু ফোটোগ্রাফার পোট্রেট তোলার জন্যও ব্যবহার করে থাকে। তবে এই লেন্সের মাধ্যমে পোর্টেট তুলতে গেলে সতর্ক হওয়ার বিশেষ প্রয়োজন।

ফিশআই লেন্স

ওয়াইড অ্যাঞ্জেল লেন্সের থেকেও চওড়া কোনো ছবি তুলতে হলে ফিশআই লেন্স সেইক্ষেত্রে উপযুক্ত।তবে এই লেন্সের ছবি ওয়াইড অ্যাঞ্জেল লেন্সের ছবির থেকে সম্পূর্ন আলাদা।লেন্সের নামেই বোঝা যাচ্ছে এই লেন্সের ছবির দৃশ্য মাছের চোখ দিয়ে দেখার মতোই হবে। এই লেন্স দিয়ে তোলা ছবি অনেকটা জলের বুদবুদের মতো দেখতে হয়।

জুম লেন্স

পোট্রেট তোলার জন্য এই লেন্স একেবারে উপযুক্ত।জুম লেন্স শুধুমাত্র একটি ফোকাল লেন্সের ওপর সীমাবদ্ধ নয়, তাই জন্য এই লেন্সে অন্যান্য লেন্সের থেকে অনেক বেশী সুবিধা পাওয়া যায় ছবি তোলার ক্ষেত্রে। ক্যামেরার লেন্সের রিং কে প্রয়োজন মতো ঘুরিয়েই নিজের ইচ্ছামতো ছবি সঠিক ফোকাসের মাধ্যমে ক্যামেরা বন্দি করা সম্ভব হয়।

ম্যাক্রো লেন্স

খুব ক্লোস-আপে ছবি তোলার জন্য যদি লেন্সের খোঁজ করে থাকেন তবে আপনার জন্য সঠিক লেন্স হলো ম্যাক্রো লেন্স।এই লেন্স ফোটোগ্রাফারকে পোকা-মাকড়ের ছবি, ফুলের ছবি কিংবা অন্যান্য ছোটো কোনো বস্তুর ছবি ভীষন পরিস্কারভাবে অতীব ফোকাসের সাথে তুলতে সাহায্য  করে।যদি আপনি পরিবেশের ছবি তুলতে ভালোবাসেন তবে এই লেন্স আপনার জন্য একদম উপযুক্ত। এই লেন্সের মাধ্যমে ছবি তুললে ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্রতর বস্তুর সমস্ত ডিটেল পরিস্কার ভাবে দেখতে পাওয়া যায়।এই লেন্সও অনেক ফোটোগ্রাফার পোট্রেট ফোটোগ্রাফিতেও ব্যবহার করে থাকেন।

উন্নতমানের ছবি তুলতে গেলে প্রয়োজন হয় উন্নতমানের লেন্সের।ওপরের এই সমস্ত লেন্সই সেই উন্নতমানের ছবি তোলার অভিজ্ঞতা প্রদান করতে পারবে ফোটোগ্রাফারকে।কিন্তু উন্নতমানের এই লেন্সগুলোর দাম একটু বেশীই বটে।তবে এই কথাটাও মাথায় রাখা প্রয়োজন ক্যামেরার থেকে লেন্স বেশীদিন টেকে। অতএব একটা উন্নতমানের লেন্সের পেছনে অর্থ বিনিয়োগ একজন সত্যিকারের ফোটোগ্রাফারের কাছে মোটেই অর্থ অপচয় মনে হবে না।

আপনার কি মনে হয়?আপনার মতামত অবশ্যই আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনের মাধ্যমে এবং লাইক ও শেয়ার করে পোস্টটিকে ছড়িয়ে দিন সকলের মাঝে।টেকনোলজি সম্বন্ধিত আরও খবর জানতে চোখ রাখুন টুকিটেকের ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়া পেজে। 

Leave a Reply